সিলেটে স্বতন্ত্রের ব্যানারে দলীয় প্রার্থী, দলীয় প্রার্থীদের চ্যালেঞ্জ

প্রকাশিত: ১২:৩১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৮, ২০২৩

সিলেটে স্বতন্ত্রের ব্যানারে দলীয় প্রার্থী, দলীয় প্রার্থীদের চ্যালেঞ্জ

নিউজ ডেস্ক : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীতদের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সিলেট বিভাগে ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের অন্তত এক ডজন নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন মনোনয়নবঞ্চিত আওয়ামী লীগ নেতারা।

 

সিলেট বিভাগে ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের অন্তত এক ডজন নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন।

 

সিলেট-১ :

সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন। তবে একই আসনে সোমবার নির্বাচন কমিশন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ।

 

তিনি এবার সিলেট-১ ও ৩ আসন থেকে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন। নৌকা না পেয়ে সিলেট-১ আসন থেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থী হচ্ছেন মিসবাহ। তিনি টানা তিনবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। এছাড়া তিনি সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সিলেট জেলা জজকোর্টের পিপির দায়িত্বও পালন করেছেন দীর্ঘদিন। গত সিলেট সিটি নির্বাচনেও মেয়র পদে দলীয় মনোনয়নপত্যাশী ছিলেন তিনি।

 

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন একে আব্দুল মোমেন। এর আগে টানা দুই মেয়াদে এই আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন মোমেনের অগ্রজ ও সাবেক অর্থমন্ত্রী প্রয়াত আবুল মাল আবদুল মুহিত।

 

স্বাধীনতার পর থেকে সিলেট-১ আসন থেকে নির্বাচিত প্রার্থীর দলই সরকার গঠন করে এসেছে। ফলে এই আসনটি ভোটের রাজনীতিতে বিশেষ গুরুত্ব বহন করে।

 

সিলেট-২ :

সিলেট-২ আসনে দল থেকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরীকে। এ আসনে এখন পর্যন্ত কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দেননি।

 

সিলেট-৩ :

সিলেটের গুরুত্বপূর্ণ আসন সিলেট-৩ এ দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন উপ-নির্বাচনে বিজয়ী হওয়া বর্তমান এমপি হাবিবুর রহমান হাবিব। তবে এ আসনে দলের মনোনয় চাওয়া বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশনের (বি.এম.এ) মহাসচিব, আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ডা. ইহতেশামুল হক চৌধুরী দুলাল নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় তিনি নিজে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন- আজ (মঙ্গলবার) মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছি। কাল অথবা পরশু জমা দিবো।

 

এছাড়াও সিলেট-৩ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে চলেছেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, সাবেক সহকারী এটর্নি জেনারেল ও বাংলাদেশ অ্যাটলেটিক্স ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রকিব মন্টু। তিনি সোমবার (২৭ নভেম্বর) এক বিজ্ঞপ্তিতে সংবাদমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

আব্দুর রকিব মন্টু বলেন – নেতাকর্মীদের চাপে, মানুষের ভালবাসায় তাদের প্রতিদান দিতে আমি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশ নেব।
অপরদিকে, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ ও সর্বইউরোপীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের উপদেষ্টা মুহাম্মদ মনির হোসাইনের স্বতন্ত্র প্রার্থীর হওয়ার জোর গুঞ্জন রয়েছে। তিনি শীঘ্রই আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁর সিদ্ধান্ত জানাবেন।

 

সিলেট-৪ :

সিলেট-৪ আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত প্রার্থী হচ্ছেন বর্তমান এমপি- বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমেদ। তবে এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. গোলাপ মিয়া। তিনি দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন।

 

সিলেট-৫ :

সিলেট-৫ আসনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ। তবে এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মাসুদ উদ্দিনের প্রতিদ্বন্দ্বী হতে যাচ্ছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অর্থনীতিবিদ ড. আহমদ আল কবির। তিনি মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। জমা দিবেন বুধবার।

সিলেট-৬ :

সিলেট-৬ আসনে আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি এই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য। কানাডা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সরওয়ার হোসেন এই আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন। তিনি নুরুল ইসলাম নাহিদের বিরুদ্ধে নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।
সরওয়ার হোসেন বলেন- এলাকার মানুষের ভালোবাসর চাপে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছি।

 

সুনামগঞ্জ-১ :

সুনামগঞ্জ-১ আসনে এবার আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রনজিত চন্দ্র সরকার। টানা তিনবারের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন ওরফে রতন এবার বাদ পড়েছেন। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন। এ জন্য মনোনয়নপত্রও সংগ্রহ করেছেন তিনি। এখানে দলীয় মনোনয়নবঞ্চিত আরও দুজন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন, তাঁরা হলেন সাবেক সচিব বিনয়ভূষণ তালুকদার ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সেলিম আহমদ।

 

সুনামগঞ্জ-২ :

সুনামগঞ্জ-২ আসনে আসনে নতুন মুখ শাল্লা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মাহমুদ দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। এখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন সাবেক সচিব মতিউর রহমান।

সুনামগঞ্জ-৪ :

সুনামগঞ্জ-৪ আসনে গত তিনটি জাতীয় নির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে জাতীয় পার্টির প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। টানা দুবারের সংসদ সদস্য হিসেবে আছেন জাতীয় পার্টির পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ। এবার এখানে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন পিএসসির সাবেক চেয়ারম্যান কবি মোহাম্মদ সাদিক। জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সম্পাদক এনামুল কবির এই আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এনামুল কবির বলেন, নির্বাচনে অংশ নেওয়া কথা ভাবছি।

 

সুনামগঞ্জ-৫ :

সুনামগঞ্জ-৫ আসনে এবারও আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য মহিবুর রহমান মানিক। জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ চৌধুরী স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচন করার কথা ভাবছেন। তিনি বলেন, আমি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছি।

 

হবিগঞ্জ-৪ :

হবিগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। তিনি এই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য। কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক (অব্যাহতিপ্রাপ্ত) আইন সম্পাদক সৈয়দ সায়েদুল হক ওরফে সুমন এই আসনে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

 

নির্বাচন প্রসঙ্গে সৈয়দ সায়েদুল হক সংবাদমাধ্যমকে বলেন- এলাকার ইতিহাসটা আমি বদলাতে চাই এবং বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে চাই। এ কারণেই প্রার্থী হচ্ছি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

কম খরচে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিন

কম খরচে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিন