সিলেটে অবৈধ স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযান

প্রকাশিত: ১২:৫৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৮, ২০২২

সিলেটে অবৈধ স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক : স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশে সিলেটে চলতি বছরের মে মাসে অবৈধ বেসরকারি ক্লিনিক, হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ব্লাড ব্যাংকের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হয়। এসময় মহানগরীসহ জেলার বেশ কয়েকটি এমন প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়। এছাড়াও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানাও করা হয়।সিলেটে লাইসেন্সহীন ও নিয়ম বহির্ভূত‚তভাবে পরিচালিত বেসরকারি হসপিটাল, ডায়াগনেস্টিক সেন্টার, ডেন্টাল ক্লিনিক ও ফার্মেসির বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান শুরু হয়েছে। রোববার সকাল থেকে সিলেটের বিভিন্ন স্থানে জেলা প্রশাসন, সিভিল সার্জন ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সমন্বয়ে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

 

অভিযানে সিলেট নগরের ডাক্তারপাড়া খ্যাত স্টেডিয়াম মার্কেটের একটি ডেন্টাল ক্লিনিক ও ডায়াগনেস্টিক সেন্টার, দরগাহ গেইট এলাকার একটি ডায়াগনেস্টিক সেন্টার ও ফার্মেসি সিলগালা এবং বিশ্বনাথের দুটি ডায়াগনেস্টিক সেন্টারকে জরিমানা করা হয়।

 

জানা গেছে, রোববার সকালে ভোক্তা অধিকার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আমিরুল ইসলাম মাসুদের নেতৃত্বে সিলেটের বিশ্বনাথে পরিচালিত হয়। এ সময় মেয়াদউত্তীর্ণ উপকরণ রাখার দায়ে মা মনি ডায়াগনেস্টিক সেন্টারকে ১৫ হাজার এবং সন্ধানী ডায়াগনেস্টিক সেন্টারকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

 

অপরদিকে, বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সিলেট নগরে অভিযান শুরু করে জেলা প্রশাসন, সিভিল সার্জন ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সমন্বয়ে গঠিত টিম। অভিযানকালে দরগাহ গেইটের (পশ্চিম) আশ-শেফা মেডিকেল সার্ভিসেস ডায়াগনেস্টিক সেন্টার ও আশ-শেফা ফার্মেসিকে সিলগালা করা হয়। এর মধ্যে ফার্মেসির ছিলো না ড্রাগ লাইসেন্স এবং ডায়াগনেস্টিক সেন্টারেরও ছিলো বৈধ কাগজপত্র। এরপর অভিযান চালানো হয় নগরের স্টেডিয়াম মার্কেটে। এ সময় সিলেট ইন-ডেন্টাল ক্লিনিক ও সেন্ট্রাল ডায়াগনেস্টিক সেন্টার নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে লাইনসেন্স না থাকায় সিলগালা করা হয়।

অভিযানে নেতৃত্ব দানকারী সিলেট জেলার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. জন্মেজয় দত্ত বলেন, ২০১৪ সাল থেকে লাইসেন্স ছাড়াই এ প্রতিষ্ঠানটি পরিচালিত হয়ে আসছে।