ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ২৬৮, রয়েছে অনেক স্কুলশিশুও

প্রকাশিত: ১:৫১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০২২

ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ২৬৮, রয়েছে অনেক স্কুলশিশুও

অনলাইন ডেস্ক : ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম জাভায় ভূমিকম্পে অন্তত ২৬৮ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। নিখোঁজ রয়েছেন অন্তত ১৫১ জন।

 

মঙ্গলবার দুর্যোগ ত্রাণ কর্মকর্তারা এমনটিই জানিয়েছেন। ভূমিকম্পে ধ্বংস হওয়া ভবন থেকে বেঁচে যাওয়া লোকজনকে উদ্ধারে কাজ করছেন উদ্ধারকারীরা।

সোমবার ৫ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্পটি ইন্দোনেশিয়ার জনবহুল প্রদেশে আঘাত হানে। এতে রাজধানী জাকার্তা থেকে ৭৫ কিলোমিটার দূরের শহর সিয়ানজুরে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কমপক্ষে একটি গ্রামে ব্যাপক ভূমিধস হয়েছে।

 

দেশটির দুর্যোগ সংস্থার প্রধান সুহারিয়ান্ত রয়টার্সকে বলেন, হাজারেরো বেশি লোক এই দুর্যোগে আহত হয়েছেন। কমপক্ষে ৫৮ হাজার লোক বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। ২২ হাজার ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়েছে।

 

জাতীয় অনুসন্ধান ও উদ্ধার সংস্থার (বাসারনাস) প্রধান হেনরি আলফিয়ানদি বলেন, ভূমিধস এবং উঁচুনিচু ভূমির কারণে উদ্ধার কাজ ব্যাহত হচ্ছে।

 

তিনি বলেন, আক্রান্ত এলাকার পরিধি বাড়ছে। এটি আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ… গ্রামগুলোতে সড়কের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

 

তিনি আরও বলেন, ভুক্তভোগীদের মধ্যে অনেক শিশু রয়েছে, যারা স্কুলে ছিল। তারা স্কুলে থাকার সময়ই ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

 

উপকূল দিয়ে চলে ফল্ট লাইন চলে যাওয়ায় ইন্দোনেশিয়ায় ৬ থেকে ৭ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প প্রায়ই ঘটে থাকে। তবে সোমবারের ভূমিকম্পটি কম মাত্রার হলেও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ঘটিয়েছে।

 

কর্মকর্তারা বলছেন, দুর্বলভাবে তৈরি করা ভবন ভেঙে অনেকের মৃত্যু হয়েছে। দেশটির প্রেসিডেন্ট বাড়িঘর পুনর্নির্মাণ এবং ভূমিকম্প প্রতিরোধক বাড়িঘর নির্মাণের আহ্বান জানিয়েছেন।

 

প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডো উদ্ধারকারীদের উৎসাহ দিতে মঙ্গলবার সিয়ানজুর সফর করেছেন। তিনি বলেন, যারা এখনো ভাঙা বাড়িঘরের নিচে চাপা পড়ে আছে তাদের উদ্ধারে গুরুত্ব দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।