January 25, 2021 8:50 pm
Breaking News
Home / Home / সৌদিতে কিশোরী খুন: রিক্রুটিং এজেন্সির মালিক আটক

সৌদিতে কিশোরী খুন: রিক্রুটিং এজেন্সির মালিক আটক

অনলাইন ডেস্ক : চাকরির জন্য সৌদি আরবে গিয়ে নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে কিশোরী উম্মে কুলসুমের (১৪) মৃত্যুর ঘটনায় তাকে সেদেশে পাঠানো রিক্রুটিং এজেন্সির মালিক মকবুল হোসাইন ও তার সহযোগী তারেককে আটক করেছে র্যাব।

বর্তমানে রাজধানীর ফকিরাপুলে এমএইচ ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল নামে ওই রিক্রুটিং এজেন্সির কার্যালয়ে অভিযান চলছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসুর নেতৃত্বে এ অভিযান শুরু হয়।

পলাশ কুমার বসু বলেন, সৌদি আরবে গৃহকর্তার নির্যাতনে কিশোরী উম্মে কুলসুমের মৃত্যুর ঘটনায় তাকে সৌদি পাঠানো রিক্রুটিং এজেন্সি এমএইচ ইন্টরন্যাশনালের ফকিরাপুল কার্যালয়ে অভিযান চালানো হচ্ছে। এমএইচ ইন্টারন্যাশনালের মালিক মকবুল হোসাইনসহ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। অভিযান চলছে, অভিযান শেষে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

চাকরির আশায় সৌদি আরবে গিয়ে নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে মারা যান ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কিশোরী উম্মে কুলসুম (১৪)। গত ৯ আগস্ট সৌদি আরবের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এরপর ১১ সেপ্টেম্বর রাতে কুলসুমের মরদেহ দেশে আনা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার নূরপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের মেয়ে কিশোরী উম্মে কুলসুমকে স্থানীয় দালাল রাজ্জাক মিয়ার মাধ্যমে ৩০ হাজার টাকা খরচ করে ১৭ মাস আগে মেসার্স এমএইচ ট্রেড ইন্টারন্যাশনালের মাধ্যমে গৃহকর্মীর কাজে সৌদি আরব পাঠানো হয়।

সেখানে গৃহকর্মী হিসেবে যোগদানের পর থেকেই কুলসুমের ওপর শারীরিক ও যৌন নির্যাতন শুরু করে মালিকপক্ষ। নির্যাতনের কারণে মেয়েকে ফিরিয়ে আনার জন্য রিক্রুটিং এজেন্সির সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগ করার পরও তাদের পক্ষ থেকে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

গত চার মাস আগে সৌদি আরবে গৃহকর্তা ও তার ছেলে মিলে কুলসুমের দুই হাঁটু, কোমর ও পা ভেঙে দেয়। এর কিছুদিন পর একটি চোখ নষ্ট করে রাস্তায় ফেলে দেয়। পরে সৌদি আরবের পুলিশ তাকে উদ্ধার করে সেখানকার কিং ফয়সাল হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে গত ৯ আগস্ট সেখানকার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় কুলসুম।

About sylhet24express

Check Also

পেছালো এমসিতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ

নিউজ ডেস্ক ::সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় বাদিপক্ষ স্বাক্ষী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *