September 28, 2020 9:05 pm
Breaking News
Home / ময়মনসিংহ / ময়মনসিংহের গফরগাঁও হাতিখলা উথুরীর প্রধান রাস্তা, যেন এক মরণ ফাঁদ!
গফরগাঁও ইউনিয়ন উথুরী ও হাতিখলার মাঝখানে রাস্তার

ময়মনসিংহের গফরগাঁও হাতিখলা উথুরীর প্রধান রাস্তা, যেন এক মরণ ফাঁদ!

ময়মনসিংহ থেকে মাজহারুল ইসলাম রাজু : ময়মনসিংহের গফরগাঁও ইউনিয়ন উথুরী ও হাতিখলার মাঝখানে রাস্তার বেহাল দশা, দেখলে মনে হবে  এটা রাস্তা না যেন এক মরণ ফাঁদ!

কাদা মাটি আর বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় রাস্তাটি চলাচলের জন্য অনুপযুক্ত হয়ে পড়েছে। কোনো বিকল্প রাস্তা না থাকায় ঝুঁকি নিয়েই লোকজন চলাচল করছে।

সরেজমিন পরিদর্শনে গেলে রাস্তাটির করুণ অবস্থা চোখে পড়ে। দেখা যায়, কাদা আর বড় বড় গর্ত। গাড়ি চলাচলের অনুপযোগি তবুও জরুরী কাজে গাড়ি নিতে হয় গাড়ি চলাচলের সময় কাত হয়ে পড়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। এতে প্রায় প্রতিদিনই ছোট খাটো দুর্ঘটনা ঘটছে।

এই রাস্তাটি এত খারাপ যে বাজার করে ব্যাগ হাতে বাড়িতে পৌঁছাতে আচার খেতে,খেতে কোমর ব্যথা হয়ে যায়। আর হেঁটে যাওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় নেই । হাতিখলা আর উথুরী থেকে প্রতিদিন প্রায় এই রাস্তা দিয়ে অন্তত প্রায় একশত ছাত্র-ছাত্রী হাতিখলা স্কুল সহ গফরগাঁও স্কুল-কলেজে যাওয়া আসা করে , বৃষ্টির মৌসুমে সময় ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুলে যাওয়া আসা বন্ধ হয়ে পড়ে মানুষের ঘর থেকে বাজারে যাও বন্ধ হয়ে যায়, বেশির ভাগই এই রাস্তা দিয়ে ছাত্র-ছাত্রীরা হেঁটেই স্কুলে যাওয়া আসা করে ।

কলেজ ও মাদ্রাসার প্রায় ৫ কিলোমিটার দূর হয়ায়। ছাত্র/ছাত্রী লোকজন তারা রিক্সা বাই সাইকেল ও মোটর সাইকেলে যাতায়াত করেন । কিন্তু বর্ষার মৌসুমে বৃষ্টির দিনে ছাত্র-ছাত্রীরা আর কোনভাবেই স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসায় রাস্তার কাদামাখা পানি জমে থাকা বড়, বড় গর্ত হয়ে যাওয়াই কোন অবস্থায় যাতায়াত করতে পারে না ।

এই গ্রামের যদি কেউ কখনও গুরুতর আহত বা জরুরী কোন রোগীকে হাসপাতালে পাঠাতে হয়, তবে বর্ষার দিনে রোগী নিয়ে থাকতে হয় এক অজানা আতঙ্কে রোগীকে হাসপাতালে পৌঁছাতে পরিবারও এলাকাবাসীকে রীতিমতো শিম, সীম, খেতে হয়। যানবাহনের জন্য , বর্তমানে বেশি হিমশিম খেতে হয় ডেলিভারি রোগী গুলো তখন সহ্য শক্তি ও চরম পরীক্ষায় মুখোমুখি হয়ে রাস্তার এই বেহাল দশার কারণে। বর্ষা শুরু থেকে শেষ অবধি পর্যন্ত মাঝে মাঝে দু-একটা রিক্সাসা উল্টে যায় এবং মালা মালের বিপুল ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়।

প্রতিদিন সকলের চলাফেরার এই একটি রাস্তা যার বেহাল অবস্থা দেখলে শিওড়ে উঠবে আপনার,আমার সকলের শরীর, এ যেন রাস্তা নয় ও সুবিধা বঞ্চিত মানুষের চাইতেও বেহাল এই রাস্তার অবস্থা। এক কথায় বলতে গেলে মানুষ যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী, আমাদের এলাকা থেকে অনেকে এই রাস্তা পাকা করনের জন্য স্থানীয় চেয়ারম্যান কে দীর্ঘ কয়েক বছর যাবৎ দাবি জানানোর পরও পাকা হয়নি হলেও তা কবে হবে বা আদৌও হবে কি না কেউ জানে না। চেয়ারম্যান জানান এই রাস্তাটির জন্য গফরগাঁও এর স্থানীয় সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল এমপি সাহেব তিনি ডিও লেটার দিয়েছেন এবং কি রাস্তার কাজ প্রক্রিয়াধীন অবস্থায় রয়েছেন।

স্থানীয় এলাকাবাসীরা জানান তারা কয়েকবার গফরগাঁয়ের এমপি ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল মহোদয়ের কাছে যেতে চেয়েছিলেন, কিন্তু তারা করোনার কারণে মাননীয় এমপি মহোদয়ের আছে তারা যেতে পারেননি। . বলে জানান তারা এবং এলাকাবাসী বলেন দেশের পরিস্থিতি ভালো হলে তারা এ রাস্তার জন্য গফরগাঁয়ের অভিভাবক এবং গফরগাঁয়ের সকল মানুষের নয়নের মনি স্থানীয় এমপি ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল এর কাছে দুই গ্রামের মানুষ সকলে যাবেন বলে জানান তারা, এলাকাবাসী আলাউদ্দিন ধনু ইসারুল হক বাদল শফিকুল মিয়া বদরুল আলম সুলতান মিয়া আলী, মিয়া মানিক মিয়া রতন মিয়া প্রমুখ এলাকার ভুক্তভোগী সাধারন জনগন বলেন আধুনিক গফরগাঁয়ের রুপকার আমাদের গফরগাঁয়ের প্রায় পাঁচ লক্ষ মানুষের অভিভাবক আমাদের এমপি মহোদয়ের কাছে আকুল আবেদন ও সু দৃষ্টি আকর্ষণ করছি অতি শীঘ্রই এই হাতিখলা বাজার থেকে উথুরী কাজির মোড়ের মাঝখানে গ্রামের রাস্তাটির জন্য তিনি যেন সুদৃষ্টি রাখেন।

এলাকাবাসী আরও বলেন আমাদের প্রিয় নেতা ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল এমপি মহোদয় যখন উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচন করেন তখন তিনি আমাদেরকে আশ্বস্ত করেছিলেন আমাদের এই রাস্তাটা পাকা করন করে দিবেন এবং এ রাস্তাটি এমপি মহোদয় নিজের চোখে দেখে গিয়েছেন এবং তিনি আমাদেরকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এ রাস্তাটি পাকাকরণ করে দিবেন তাই ওনার কাছে আমাদের এলাকার বাসির দাবী রইল এই রাস্তাটি যেন অতি দ্রুত তাড়াতাড়ি করে দেন, এবং এলাকাবাসী মাননীয় এমপি মহোদয় ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল কাছে একটি অনুরোধ করেন , এই রাস্তা টি করেছিল মৃত আফতাব উদ্দিন তৎকালীন চেয়ারম্যান ছিলেন মির আবু তালেব খোকা তার কিছু সহযোগিতায় তিনি তুমুল লড়াই সংগ্রাম করে এ রাস্তাটি নির্মাণ করেছিলেন বিভিন্ন হুমকি-ধমকি অপেক্ষায় করেও মৃত আফতাব উদ্দিন এই এলাকার মানুষের জন্য এই রাস্তাটি করে দেন , তাই এলাকার বাসির প্রানের দাবি মানুষের চলাচলের রাস্তাটি যেন মৃত আফতাব উদ্দিন রাস্তা নামে নাম করন করা হয়।

About admin

Check Also

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষ্যে মুক্তিযোদ্ধা ভবনে দোয়া মাহফিল ও কেক কেটে জন্মদিন উদযাপন

নূরুদ্দীন রাসেল :: বাংলাাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী জননেন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *