July 7, 2020 3:19 am
Breaking News
Home / Home / এবার সুশান্তের পত্রিকার ডিক্লারেশন বাতিল চায় প্রেসক্লাব

এবার সুশান্তের পত্রিকার ডিক্লারেশন বাতিল চায় প্রেসক্লাব

নিউজ ডেস্কঃ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় গ্রেপ্তার সুশান্ত দাশ গুপ্তের দৈনিক আমার হবিগঞ্জের ডিক্লারেশন বাতিলের দাবিতে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব।

শনিবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মর্জিনা আক্তারকে স্মারকলিপি হস্তান্তর করেন প্রেসক্লাব সভাপতি মো. ইসমাইল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক সায়েদুজ্জামান জাহির।

স্মারকলিপিতে পত্রিকা প্রকাশনা বন্ধের পক্ষে বিভিন্ন অভিযোগ আনা হয়।

এতে উল্লেখ করা হয়, সুশান্ত দাশ গুপ্ত সরকারের বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক নেতা, সামাজিক সাংস্কৃতিক ও সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মনগড়া তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে আসছেন। হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য, স্থানীয় দৈনিক দেশ জমিনের (প্রায় ৩ বছর ধরে প্রকাশ হচ্ছে না ) সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি আবু জাহিরের বিরুদ্ধে পত্রিকায় অপ্রচার চালাচ্ছেন। করোনার কারণে হবিগঞ্জে অন্যান্য পত্রিকার প্রকাশনা যেখানে বন্ধ, সেখানে আমার হবিগঞ্জ পত্রিকা প্রকাশনা অব্যাহত রাখা হয়েছে। সুশান্ত দাশ ইংল্যান্ড প্রবাসী হওয়া সত্ত্বেও কীভাবে পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক হয়েছেন তা খতিয়ে দেখার অনুরোধ জানানো হয়।

কোনো ‘অপশক্তির ছত্রছায়ায় গোপন মিশনে’ নেমেছেন বলে সুশান্ত দাশের বিরুদ্ধে স্মারকলিপিতে অভিযোগ আনা হয়।

২১ মে সকাল ৬টায় দৈনিক আমার হবিগঞ্জের সম্পাদক, প্রকাশক ও আমার এমপি ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা, সিলেট শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সুশান্ত দাশ গুপ্তকে পত্রিকার অফিস থেকে গ্রেপ্তার করে হবিগঞ্জ থানা পুলিশ।

তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বিভিন্ন ধারায় অভিযোগ আনা হয়। মামলার বাদী হন হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও আরটিভির হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি সায়েদুজ্জামান জাহির।

তিনি হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু জাহিরের বিরুদ্ধে সুশান্ত দাশ গুপ্তের পত্রিকায় একাধিক অসত্য সংবাদ প্রকাশসহ সেসব অনলাইন ও ফেসবুকে প্রচারের অভিযোগ এনেছেন।

মামলায় সম্পাদক ছাড়াও নির্বাহী সম্পাদক নুরুজ্জামান মানিক, বার্তা সম্পাদক রায়হান উদ্দিন সুমন ও প্রধান প্রতিবেদক তারেক হাবিবকে আসামী করা হয়। বর্তমানে তারা পলাতক রয়েছেন বলে পুলিশ জানায়।

তবে পত্রিকা প্রকাশ অব্যাহত রয়েছে।

এর আগে সংবাদ প্রকাশের জেরে ২০১৬ সালে স্থানীয় দৈনিক প্রভাকর সম্পাদক, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শোয়েব চৌধুরীর বিরুদ্ধে সাংবাদিক ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা তথ্যপ্রযুক্তির আইনে ৫৭ ধারায় চারটি মামলা করেন। তিন মাস কারাগারে থাকার পর তিনি জামিনে বের হন। বর্তমানে মামলাগুলো হাইকোর্টে স্থগিত রয়েছে।

About sylhet24express

Check Also

দক্ষিণ সুরমায় ১০ বছরের নাতনিকে ধর্ষণে ধর্ষক নানাকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৯

অনলাইন ডেস্ক : দক্ষিণ সুরমায় ১০ বছরের নাতনিকে ধর্ষণে ধর্ষক কথিত নানাকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৯। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *