October 29, 2020 2:13 pm
Breaking News
Home / Home / আকবর পলাতক, স্বীকার করলেন এসএমপি কমিশনার

আকবর পলাতক, স্বীকার করলেন এসএমপি কমিশনার

নিউজ ডেস্ক::  সিলেট বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হান নামক যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় ঘুরেফিরে একটি নামই সবচেয়ে বেশি আলোচনায়। তিনি ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভুঁইয়া। এ ঘটনায় মামলার পর থেকেই লাপাত্তা রয়েছেন আলোচিত সেই আকবর।

তার লাপাত্তা হওয়ার বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে একাধিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হলেও পুলিশের ঊর্ধ্বতন মহল থেকে বিষয়টি আনুষ্ঠানিক স্বীকার করছিলেন না কেউ। তবে আকবর যে পলাতক; এবার তা স্বীকার করলেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি) কমিশনার গোলাম কিবরিয়া।

ঘটনার পাঁচদিন পর বৃহস্পতিবার রাতে ভিকটিমের পরিবারের সাথে দেখা করার পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসআই আকবরের পলাতকের বিষয়টি স্বীকার করেন। একই সাথে তিনি বলেন- সকল সন্দেহভাজনকেই নজরদারিতে রেখেছে পুলিশ। আকবরকে আটকের চেষ্টাও চলছে।

এসময় তিনি বলেন- ঘটনার প্রথম দিন থেকেই তদন্তের স্বার্থে যা যা করনীয় সবই করছে পুলিশ। সেইভাবেই ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন : অতিরিক্ত নির্যাতনের কারণেই মারা যান রায়হান

এর আগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এসএমপি কমিশনার গোলাম কিবরিয়া নগরীর আখালিয়া এলাকায় নিহত যুবকের বাড়িতে গিয়ে তার স্বজনদের সাথে কথা বলেন।

এছাড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতের যুবকের পরিবারের কাছে অর্থ সহায়তা পৌছে দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধায় জেলা প্রশাসকের দুজন প্রতিনিধি ভিকটিমের পরিবারের হাতে নগদ ৫০ হাজার টাকা তুলে দেন।

আরও পড়ুন : রায়হান হত্যা : নগরীতে পুলিশকে ধাওয়া করলো বিক্ষোভকারীরা

এদিকে সিলেটে পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে যুবককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে জনতার ক্ষোভ বাড়ছেই। খুনিদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবিতে বৃহস্পতিবারও সিলেট সুনামগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভকারীরা। এসময় পুলিশ তাদের সড়ক থেকে তুলে দেওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশকে ধাওয়া করে বিক্ষুব্ধ জনতা। পরে তারা সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে তারা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। ঘটনার পাঁচদিনেও খুনিদের গ্রেপ্তার না করায় পুলিশের বিরুদ্ধে স্লোগান দেয় তারা।

About sylhet24express

Check Also

শুক্রবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)

নিউজ ডেস্ক ::আগামীকাল শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সারাদেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত হবে। ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *