Sunday , September 22 2019
Home / Home / সুনামগঞ্জ শহরে প্রবেশ করেছে বন্যার পানি

সুনামগঞ্জ শহরে প্রবেশ করেছে বন্যার পানি

মো : উসমান গনী সুনামগঞ্জ :  টানা বর্ষণ আর পাহাড়ী ঢলে সৃষ্ট বন্যার পানি সুরমা নদীর বিপদসীমা ১০০ সেন্টিমিটার ছাড়িয়ে এখন শহরমূখী। বন্যার পানি সুরমা নদী উপচে শহরের অন্তত ৭টি পয়েন্ট, মধ্যবাজার, পশ্চিমবাজার এলাকাসহ বিভিন্ন পাড়ামহল্লায় প্রবেশ করতে শুরু করেছে। আগামী কয়েকদিন টানা বৃষ্টিপাত হলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বলে আশংকা করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) রাত ৯টা পর্যন্ত বিপদসীমার রেডিং পয়েন্ট ৭.২০ সেন্টিমিটার ছাড়িয়ে ৮.২০ সেন্টিমিটারে পৌঁছেছে। রাতে বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকলে নদীর পানি শহরের উঁচু উঁচু স্থানে প্রবেশ করার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শহরের নবীনগর, ধোপাখালি, ষোলঘর, কাজিরপয়েন্ট, উকিলপাড়া, পশ্চিম আরপিননগর, পশ্চিম তেঘরিয়া, পশ্চিম হাজীপাড়া, বড়পাড়া, সাববাড়ীঘাট, জেলরোড, মধ্যবাজার এলাকায় পানি প্রবেশ করেছে। ফলে পানি যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। বেশি সম্যায় আছেন শহরের নবীনগর ও বড়পাড়া বস্তি ও সাববাড়ীঘাট ও উত্তর আরপিননগর এলাকার মানুষ। প্রায় পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছেন তারা।

এদিকে মধ্যবাজার ও বিভিন্ন পয়েন্টের দোকানে বন্যার পানি ঢুকার আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়িরা। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে মালামালের ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে বলে জানান তারা।

শহরের পশ্চিম হাজীপাড়া এলাকার দুলাল মিয়া বলেন, আমার বাড়ীর আশেপাশে পানি। বাসার সামনের রাস্তা কোমর পানি। এভাবে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে বাসায় পানি ঢুকতে পারে। পাশের বস্তি এলাকার মানুষ বিপাকে আছেন। প্রায় ঘরেই পানি ঢুকে গেছে।

মধ্যবাজার এলাকার এক ব্যবসায়ি হেলাল উদ্দিন বলেন, আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে লক্ষ লক্ষ টাকার মালামাল। যেভাবে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে মনে হচ্ছে রাতেই দোকানে পানি ঢুকবে। এতো টাকার মালামাল কোথায় রাখি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বক্কর ছিদ্দিকী ভূইয়া বলেন, সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ১০০ সেন্টিমিটার ছাড়িয়েগেছে। আগামী তিন দিন বৃষ্টিপাত হবে, পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে।

About sylhet 24express

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares