Breaking News
loading...
Home / সমগ্র বাংলাদেশ / অমিত সম্ভাবনার শ্রীমঙ্গল

অমিত সম্ভাবনার শ্রীমঙ্গল

Srimangal Pic

মৌলভীবাজার প্রতিনিদি : অমিত সম্ভাবনার ছোট্ট এক উপজেলা শ্রীমঙ্গল। দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় সিলেট বিভাগের মৌলভীবাজার জেলা সদর থেকে ২০ কিলোমিটার দক্ষিণে শ্রীমঙ্গলের অবস্থান। এর আয়তন ৪২৫.১৫ বর্গকিলোমিটার। পাহাড়, অরণ্য, হাওর, গ্যাস সম্পদ আর সবুজ চা বাগান ঘেরা চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গল ভৌগলিক অবস্থান ও প্রাকৃতিক সম্পদ এ উপজেলাকে শুধু সমৃদ্ধই করেনি, দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্বব্যাপী সুপরিচিত করে তুলেছে। এ শহর এখন পর্যটনের বিশাল সম্ভাবনার শহরে পরিণত হয়েছে। একই সাথে বিভিন্ন নৃ-তাত্তি¡ক জনগোষ্ঠীর বিচিত্র জীবনাচার, সংস্কৃতি, নিজস্ব ভাষা, কৃষ্টি, পোষাকের ভিন্নতা, ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান এ উপজেলাকে করেছে বৈচিত্র্যময়।

খাসিয়া, মনিপুরী, টিপরা, গারো, সাওতালসহ চা শ্রমিক জনগোষ্ঠীর আরো ৪০-৪৫টি উপ-সম্প্রদায়ের বসবাস এ উপজেলায়। শ্রীমঙ্গলে রয়েছে মূল্যবান গ্যাস সম্পদ। শ্রীমঙ্গলে অবস্থিত মৌলভীবাজার গ্যাস ফিল্ডের ৯টি গ্যাসকুপ থেকে উত্তোলিত গ্যাস শ্রীমঙ্গলের কালাপুরে অবস্থিত গ্যাস প্রসেসিং প্লান্টের মাধ্যমে প্রক্রিয়াজাতকরণ শেষে প্রতিদিন গ্যাস হবিগঞ্জের মুছাইতে অবস্থিত পেট্রোবাংলার জাতীয় গ্রীডে সরবরাহ করা হচ্ছে।

পর্যটনেও রয়েছে শ্রীমঙ্গলে অপার সম্ভাবনা। প্রতিদিন অগণিত দেশি-বিদেশি পর্যটক শ্রীমঙ্গল ভ্রমণ করছেন। ৫৬০ বছরের প্রাচীন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ঐতিহাসিক তীর্থস্থান নির্মাই শিববাড়ি, হাইল হাওর, বাইক্কা বিল, লাউয়াছড়া জাতীয় পার্ক, চা বাগান, পাঁচ তারকা হোটেল, টি-রিসোর্ট প্রভৃতি উলে­খযোগ্য দর্শনীয় স্থান। শ্রীমঙ্গলে এছাড়া আরো অনেক পর্যটন স্পট রয়েছে।
এ উপজেলায় দেশের সর্বাধিক চা বাগানের অবস্থান। সংখ্যায় প্রায় ৪৪ টি। জানা যায়, ১৮৮০ সালে শ্রীমঙ্গলের বালিশিরা উপত্যকায় ব্রিটিশরা চা বাগানের গোড়াপত্তন করেছিল। বর্তমান শুধুমাত্র শ্রীমঙ্গলেই প্রতিবছর চা উৎপাদন হয় ১ কোটি ৩৩ লাখ ৭৫ হাজার ৮৫৬ কেজি। যার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় ২৬৭ কোটি ৫১ লাখ ৭১ হাজার ২শত টাকা।

শ্রীমঙ্গলের মৎস্য অফিসের তথ্যমতে, শ্রীমঙ্গল উপজেলায় প্রতিবছর মাছ উৎপাদন হয় ৬ হাজার ১৯৪ মেট্রিক টন, যার বাজার মূল্য ৬১.৯৪ কোটি টাকা। উপজেলায় ১টি হাওর (১৪,০০০ হেক্টর), ৪৭০৬টি পুকুর (৫৮২.৯ হেক্টর), ৫৯ টি বিল (১৪৩৩.৭৮ হেক্টর), ১টি মৎস্য অভয়াশ্রম (১০০ হেক্টর) রয়েছে।

কৃষি অফিসের তথ্য অনুযায়ী, এই উপজেলায় আবাদী জমির পরিমাণ ৩৫ হাজার ৩১ হেক্টর। এরমধ্যে ধানের জমি রয়েছে ২০ হাজার ২৮০ হেক্টর এবং সবজি উৎপাদন হয় ৯৩৬ হেক্টর জমিতে। লেবু হয় ১ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে এবং আনারস উৎপাদিত হয় ৪০০ হেক্টর জমিতে। এখানে লেবু ও আনারস বাগানের সংখ্যা প্রায় ২ হাজার। শ্রীমঙ্গলের বাজারে প্রতিমাসে কোটি টাকার লেবু ও আনারস কেনা-বেচা হয়।

বার্ডলাইফ ইন্টারন্যাশনাল শ্রীমঙ্গলের হাইল হাওরকে ‘গুরুত্বপূর্ণ পাখি এলাকা’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে। প্রতি বছর জানুয়ারি ও ফেব্র“য়ারিতে ওয়াটার বার্ড সেনসাস এর আওতায় এখানে পাখি শুমারি অনুষ্ঠিত হয় এবং এই তথ্য জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে সংরক্ষণ করা হয়। বাংলাদেশের সর্বোচ্চ জীববৈচিত্র্যপূর্ণ অঞ্চলগুলোর অন্যতম এ হাওরটি ৯৮ প্রজাতির মাছের আবাসভ‚মি এবং ১৬০ প্রজাতির পাখির অন্যতম বিচরণক্ষেত্র। সম্প্রতি হাওরের বাইক্কা বিলে পাখির পায়ে রিং পরানোর মাধ্যমে পাখি নিয়ে গবেষণা কার্যক্রম শুরু করেছে বাংলাদেশ বার্ড ক্লাব। শ্রীমঙ্গলে রেকর্ড পরিমাণ লেবু ও আনারস উৎপাদিত হলেও আজ পর্যন্ত কোনো টিনজাত শিল্প গড়ে উঠেনি। অথচ প্রয়োজনীয় পৃষ্ঠপোষকতা পেলে শ্রীমঙ্গলে উৎপাদিত লেবু ও আনারস শুধু জেলায় নয়, দেশের বিপুল জনগোষ্ঠীর চাহিদা মিটিয়ে জেম, জুস, জেলিসহ টিনজাত শিল্প গড়ে তোলা যেত। এতে রপ্তানিসহ কর্মসংস্থানের সুযোগও সৃষ্টি হতো তেমনি বিপুল অংকের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনও সম্ভব হতো।
এছাড়াও মূল্যবান প্রজাতির কাঠ, রাবার, ও কাঠাল শ্রীমঙ্গলে প্রচুর পরিমাণে জšে§। এগুলোও অর্থনীতিতে ব্যাপক অবদান রাখছে।

অনিন্দ্যসুন্দর পর্যটন শহর শ্রীমঙ্গলে সাম্প্রতিক সময়ে অনেক রিসোর্ট, কটেজ, বাংলো প্রভৃতি গড়ে উঠেছে। গড়ে উঠেছে পাঁচতারকা হোটেলও। কিন্তু এখানে নেই কোনো পর্যটন মোটেল। নেই পর্যটন করপোরেশনের কোনো তথ্য কেন্দ্র। এসব সামান্য কিছু অবকাঠামোগত উন্নয়নে শ্রীমঙ্গলের পর্যটনখাতসহ বিভিন্ন খাতের উন্নয়ন ঘটালে শ্রীমঙ্গলে অর্থনৈতিক সম্ভাবনা ও কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে বিপ্লব ঘটে যেতে পারে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

Loading...
loading...

ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন



Loading...

About sylhet24 express

Check Also

সিলেট জেলা বিএনপির আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

সিলেট জেলা বিএনপির আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

সিলেট অফিস :  বিএনপির সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম বলেছেন- সাবেক রাষ্ট্রপতি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *