Breaking News
loading...
Home / সমগ্র বাংলাদেশ / ফেঞ্চুগঞ্জ-রাজনপুর সড়ক যেন মরন ফাঁদ !

ফেঞ্চুগঞ্জ-রাজনপুর সড়ক যেন মরন ফাঁদ !

ফেঞ্চুগঞ্জ-রাজনপুর সড়ক যেন মরন ফাঁদ !

সিলেট অফিস : ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা সদর বা পার্শ্ববর্তী এলাকায় যোগাযোগের একটাই সড়ক ফেঞ্চুগঞ্জ থানা রোড- রাজনপুর – মাইজগাও। কিন্তু সংস্কারবিহীন ও সম্প্রতি বন্যা আক্রান্ত হওয়াতে এ সড়কটি মারাত্মক বিপদজনক হয়ে উঠেছে। দুর্ঘটনা ঝুকিতে পড়েছেন কাসিম আলী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ও ফেঞ্চুগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থীরা।

থানা রোড থেকে মাইজগাও – ডিগ্রী কলেজ রোড পুরোটাই খানাখন্দ ভরা বিপদজনক। এর মধ্যবর্তী রাজনপুর সড়ক যেন রাক্ষসের আকার নিয়ে বসে আছে!

বড় বড় গর্ত, দেবে যাওয়ায় ছোট যানবাহন ও চলাচল করতে পারছে না। বিকল্প রাস্তা না থাকায় নিরুপায় চালক,যাত্রী এ রাস্তা  ব্যবহার করছেন আর দুর্ঘটনা বাড়ছে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে মালবাহী ট্রাক উল্টে যাওয়ায় শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত যান চলাচল বন্ধ ছিল রাজনপুরের এ সড়ক দিয়ে। বিপাকে পড়েন ব্যবসায়ী ও সাধারণ লোকজন।

স্থানীয়রা জানান, খানা খন্দে ভরা দুর্বল সড়কে গাড়ির চাকা কখন কোথায় ফেসে যায় বুঝা দায়! গত ১৫ দিনে এখানে কমপক্ষে ১০টি দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানান গ্রামবাসীরা।  কিছুদিন আগে গ্রামবাসীরা শ্যালো মেশিন দিয়ে রাস্তার জলাবদ্ধতা দূর করে রাস্তা কে চলাচল উপযোগী করে তুলেন।  কিন্তু বড় বড় খানাখন্দ বিপদজনক হয়ে দাঁড়ায়।

বিকল্প রাস্তা হিসাবে কাসিম আলী – ইসলামপুর হয়ে পুর্ব বাজার। কিন্তু এ রাস্তা সরু ও ইসলামপুরের কালভার্ট ভার নিতে অক্ষম বলে এ বিপদজনক রাজনপুর সড়ক ব্যবহার করাই একমাত্র পথ।

স্থানীয় শিক্ষক ও ব্যবসায়ী বলেন, এ রাস্তা নিয়ে অনেক কথা, লেখালেখি ও হয়েছে কাজ হয় নি। আমরা আন্দোলনে যাবার চিন্তা করছি।

এ ব্যাপারে সিলেট সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তা নুরুল মজীদ বলেন, এ সড়কের জন্য আলাদা ফান্ড নেই। এটি একটি প্রকল্পে দেওয়া হয়েছে যা প্রক্রিয়াধীন। প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে আসার আগে আমরা আমরা ইট বালু দিয়ে আপাতত চলাচল উপযোগী করে দিব।

Loading...
loading...

ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন



Loading...

About sylhet24 express

Check Also

সিলেট জেলা বিএনপির আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

সিলেট জেলা বিএনপির আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

সিলেট অফিস :  বিএনপির সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম বলেছেন- সাবেক রাষ্ট্রপতি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *