Breaking News
loading...
Home / সমগ্র বাংলাদেশ / যেন সতিনের বাড়ির পাশে রাস্তা তাই ?

যেন সতিনের বাড়ির পাশে রাস্তা তাই ?

যেন সতিনের বাড়ির পাশে রাস্তা তাই ?

চন্ডিপুল থেকে সুলতানপুর ২৯ কিলোমিটার রাস্তা কাহানী

নূরুদ্দীন রাসেল সিলেট : সতিনরে বাড়ির পাশে রাস্তা তাই, সংস্কার হচ্ছে না, হব্ওে না এমন রসাত্মক ধারনা ভোক্তভোগী জনগোষ্টির। সিলেট চন্ডিপুল থেকে সুলতানপুর বালাগঞ্জ রাস্তার দূরত্ব মাত্র ২৯ কিলোমিটার।

দশ বছরেও হয়নি রাস্তার উন্নয়ন কাজ। এ রাস্তার উন্নয়ন কাজ নিয়ে রয়েছে চরম দন্দ। সুত্র জানা গেছে, দীর্ঘ দিন থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান আবু জাহিদ ও এমপি মাহমুদ উস সামাদের সম্পর্ক ভালো যাচ্ছে না।

যার ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন দুই উপজেলার লক্ষাধিক মানুষ।

ক্ষোভ নিয়ে অনেকে বলছেন তাদের মধ্যে সতিনদের মধ্যে যে স্বভাব রয়েছে। এর কারণেই হচ্ছে না এ রাস্তাটির উন্নয়ন কাজ। সিলেট জেলার সবচেয়ে ব্যবহার অনুপযোগি বালাগঞ্জ-সুলতানপুর রাস্তা। এমন রাস্তা কোথায়ও খুঁজে পাওয়া যাবে না। তাদের দ্বন্ধের কারণে সাধারণ মানুষের কাছে বির্ব্রতবোধ করছেন স্থানীয় প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।

সিলেট থেকে সুলতানপুর-বালাগঞ্জ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করেন কয়েক হাজার মানুষ। বালাগঞ্জ-উসমানীনগর উপজেলায় রয়েছে স্কুল, কলেজ মাদ্রাসা সহ দ্বীনী প্রতিষ্টান। সিলেট থেকে প্রায়ই যাতায়ত করেন কর্মজীবী মানুষেরা। এমনিক দুই উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা দিয়ে স্কুল, কলেজ, ব্যাংক, অফিস. আদালতে প্রতিদিন সিলেট শহরেও আসেন কয়েক হাজার মানুষ।

ফলে চরম বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন এলাকার মানুষজন। প্রতিদিন কোন না কোন ভাবে ঘটছে দুর্ঘটনা। গত কয়েক মাস আগে সিলেট থেকে নিউজ কাভারেজ করতে গিয়ে অটোরিক্স (সিএনজি)’র চাকা ভেঙ্গে কয়েকজন সাংবাদিকও আহত হয়েছেন এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে গিয়ে।

গত কয়েক মাস পূর্বে এই রাস্তার নিয়ে এলাকাবাসী মানববন্ধন করতে চাইলে স্থানীয় এমপি র‌্যাব দিয়ে মাববন্ধনে বাধা প্রদান করেন। এই এলাকার সাধারণ মানুষ জন মনে করছেন এমপির কারণে আগামী নির্বাচনে বড় ধরণে প্রভাব পড়েবে। রাস্তার কারণে এলাকার ভোট থেকে বঞ্চিত হবেন আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন প্রাপ্ত যে কোন এমপি প্রার্থী। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও যোগাযোগ মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করছেন দুই উপজেলার প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।

এমনকি এমপির বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ রয়েছে স্থানী মানুষের। রাস্তা, বিদুৎ, শিক্ষা প্রতিষ্টানসহ কোন কিছুর উন্নয়ন করতে পারেন নি এমপি। গত ৭ বছর পূর্বে বালাগঞ্জ উপজেলার একাংশের তার নির্বাচনী ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি রাস্তার নাম ফলক উদ্বোধন করে তিনি। নাম ফলক কার্যকর হয়েছে কিন্তু রাস্তার কোন কাজ বা উন্নন কিছুই হয়নি। এই এলাকার বেশিরভাগ রাস্তারই বেহাল দশা।

সিলেট-সুলতানপুর-বালাগঞ্জ ২৯ কিলোমিটার সড়কের বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃৃষ্টি হয়ে নাজুক অবস্থা বিরাজ করছে। বিশেষ করে এই সড়কের শেখপাড়া-টিকরপাড়া সংলগ্ন, সিলাম মাঝপাড়া জামে মসজিদের সামন, বিবির মোকাম থেকে আনন্দবাজার (আখড়াবাজার), চারকাটি রাস্তারমূখ, সিলাম ইউনিয়ন পরিষদের সামন, কলা বাগানবাজার, বটেরতল, জালালপুর ইউনিয়নের ডাকির মহল জামে মসজিদের সামন, আজমতপুর, পিড়িলা-কোনা, দেওয়ানবাজার ইউনিয়নের নশিওরপুর, নর্থইস্ট বালাগঞ্জ কলেজের সামন, খাঁপুর রাস্তারমুখ, মোরার বাজার, আজিজপুর, চাম্পার কাঁন্দি, জামালপুরসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় যানবাহন চলাচল প্রায় অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

২০১৪ সালের দিকে এ সড়কের দায়সারা সংস্কার হলেও মোরারবাজার থেকে স্থানীয় জান-মোহাম্মদ খালের বেইলী ব্রীজ পর্যন্ত সংস্কারহীন রাখা হয়। এছাড়া এ সড়কে কিছু স্থানে পিচ তুলে গতবছর ইট সলিং করা হয়। এতে উপকারের বদলে কষ্ট মাত্রা আরো বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। ইতোমধ্যে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করা হলেও কোন প্রতিকার মিলেনি। তাই এ সড়কের নিত্যযাত্রীদের করুন দশার কথা বিবেচনা করে জরুরী ভিত্তিতে সড়কটি মেরামত করা প্রয়োজন বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

 

Loading...
loading...

ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন



Loading...

About admin

Check Also

সিলেট জেলা বিএনপির আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

সিলেট জেলা বিএনপির আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

সিলেট অফিস :  বিএনপির সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম বলেছেন- সাবেক রাষ্ট্রপতি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *