Breaking News
loading...
Home / অর্থনীতি / বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনা অভিযোগপত্র জমা দিতে সময়ক্ষেপণ

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনা অভিযোগপত্র জমা দিতে সময়ক্ষেপণ

 

বাংলাদেশ ব্যাংক

মেহ্দী আজাদ মাসুম : বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় ৭ মাস আগে দায়ের করা মামলার ১৮তম ধার্য দিনেও অভিযোগপত্র জমা দিতে পারেনি সিআইড পুলিশ। আলোচিত এ মামলায় আবারও সময় চেয়ে আবেদন করে দেড় মাসেরও বেশি সময় পেয়েছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা।

গতকাল ১৮তম ধার্য দিনে আদালতে মামলাটির অভিযোগপত্র জমা দিতে না পেরে তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) অতিরিক্ত সুপার রায়হান উদ্দিন খান সময়ের আবেদন করেন। শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম একেএম মঈনুদ্দীন সিদ্দিকী অভিযোগপত্র দাখিলের জন্য ২৯ নভেম্বর নতুন দিন ধার্য করেন। আদালত পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এসআই জালাল উদ্দিন আলোকিত সময়কে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

গত বছরের ৫ ফেব্র“য়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে জালিয়াতি করে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার ফিলিপিন্সের একটি ব্যাংকে সরিয়ে নেওয়া হয়। দেশের অভ্যন্তরের কোনো একটি চক্রের সহায়তায় এই অর্থ পাচার হয়েছে বলে সে সময়ে বিশেষজ্ঞরা মতামত দেন।

এ ঘটনায় চলতি বছরের ১৫ মার্চ বাংলাদেশ ব্যাংকের অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড বাজেটিং ডিপার্টমেন্টের উপ-পরিচালক জোবায়ের বিন হুদা অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে মতিঝিল থানায় মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন-২০১২ (সংশোধনী ২০১৫) এর ৪ ধারাসহ তথ্য ও প্রযুক্তি আইন-২০০৬ এর ৫৪ ধারায় ও ৩৭৯ ধায়ায় বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

রিজার্ভ চুরির ঘটনায় মামলা দায়েরের পর সিআইডি পুলিশ তদন্তে মাঠে নামে। তদন্ত শেষ করে আদালতে রিপোর্ট জমা দিতে ইতিপূর্বে সাত মাসে ১৭ বার সময় নির্ধারিত (ধার্য) হয়। গতকাল ১৮তম ধার্য দিনেও চাঞ্চল্যকর এ মামলার অভিযোগপত্র (তদন্ত রিপোর্ট) জমা দিতে পারেনি সিআইড পুলিশ। আবারও সময় চেয়ে আবেদন করে দেড় মাসেরও বেশি সময় পেয়েছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে আলোচিত এ মামলার অভিযোগ পত্র জমা দিতে সময়ক্ষেপণে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবীদ, সিপিডির ট্রাস্টি ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য। গতকাল আলোকিত সময়কে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনায় যে দেশের ভেতরের কেউ জড়িত আছে সে বিষয়টি আরও স্পষ্ট হচ্ছে তদন্ত কমিটির এই সময়ক্ষেপণে। চাঞ্চল্যকর এ চুরির ঘটনার তদন্ত রিপোর্ট দ্রুতই জমা দেওয়া উচিত। তা না হলে আমাদের বড় ক্ষতি হয়ে যাবে।’

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহউদ্দিন আহমদ বলেন, ‘এই বিষয়টা খুবই স্পর্শকাতর। কারণ আসলে চুরির প্রকৃত ঘটনা এবং জড়িতদের বিষয়ে তথ্য জানতে দেশের মানুষের আগ্রহের কমতি নেই। জানতে চায় ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত এবং জড়িতদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হলো? এ ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন যত দ্রুত সম্ভব সম্পন্ন করে জমা দেওয়া উচিত। বাংলাদেশের সিআইডি পুলিশের অনেক সাফল্য আছে। এ ক্ষেত্রে তারা সফল হবে বলে আমার বিশ্বাস।’

যা ঘটেছিল সেদিন (ফ্ল্যাশব্যাক) : গত বছরের ৫ ফেব্র“য়ারি বাংলাদেশ ব্যাংকের সুইফটের মাধ্যমে যেসব আর্থিক লেনদেন করা হয়, তার একটি নিশ্চিতকরণ বার্তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে প্রতিদিন প্রিন্ট হয়। ওইদিন বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব ও বাজেট বিভাগের যুগ্ম পরিচালক জোবায়ের বিন হুদা দেখতে পান, প্রিন্টার মেশিনে সুইফটের স্বয়ংক্রিয় বার্তা প্রতিবেদন প্রিন্ট হয়নি। জোবায়ের ও তার সহকর্মীদের একই প্রতিবেদন সনাতন পদ্ধতিতে প্রিন্ট করতে ২৪ ঘণ্টা সময় লেগে যায়।

একই দিনে ফিলিপাইনের রিজাল ব্যাংকে উইলিয়াম গোর নামে আরেকটি হিসাব খোলা হয়। পাশাপাশি একই ব্যাংকে জেসি ক্রিস্টোফার ল্যাগরোসাস নামে খোলা একটি হিসাব থেকে ২ কোটি ২৭ ডলার তুলে নেওয়া হয়। পরে সেই অর্থ জমা হয় উইলিয়াম গোর হিসাবে।
৬ ফেব্রুয়ারি: এদিন বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা জোবায়ের বিন হুদা এদিন কার্যালয়ে এসে দেখেন সুইফট সিস্টেমটি যথাযথভাবে কাজ করছে না। পরে বিকল্প উপায়ে সিস্টেমটি চালু করে বেশ কিছু নিশ্চিতকরণ বার্তা দেখতে পান, যেগুলো এসেছিল নিউইয়র্ক ফেডের কাছ থেকে।

৮ ফেব্রুয়ারি : এ দিন বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা নিশ্চিত হন, পাঁচটি অনুমোদিত সুইফট বার্তার মাধ্যমে নিউইয়র্ক ফেডের হিসাব থেকে ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার সরানো হয়েছে। এর মধ্যে ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার গেছে ফিলিপাইনের রিজাল ব্যাংকে। আর ২ কোটি ডলার গেছে শ্রীলঙ্কার প্যান এশিয়ান ব্যাংকিংয়ে। আরও ৮৫ কোটি ডলার স্থানান্তরের নির্দেশনা আটকে দেওয়া হয়েছে। ওই দিনই বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক ফেড, ব্যাংক অব নিউইয়র্ক মেলোন, সিটিগ্র“প, ওয়েলস ফার্গো, ফিলিপাইনের রিজাল ব্যাংক ও শ্রীলঙ্কার প্যান এশিয়ান ব্যাংকের কাছে অর্থের লেনদেন বন্ধের বার্তা পাঠানো হয়।

৯ ফেব্রুয়ারি : এ দিন রিজাল ব্যাংকের চারটি হিসাব থেকে ৫ কোটি ৮১ লাখ ডলার জমা করা হয় একই ব্যাংকের উইলিয়াম গোর হিসাবে। এদিন ফিলিপাইনের রিজাল ব্যাংকের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংককে জানানো হয়, চারটি হিসাবের লেনদেন আটকে দিয়েছে, কিন্তু ততক্ষণে ওইসব হিসাব থেকে সিংহভাগ অর্থই সরিয়ে ফেলা হয়।

১১ ফেব্রুয়ারি : এ দিন ফিলিপাইনের অ্যান্টি মানি লন্ডারিং কাউন্সিল (এএমএলসি) আনুষ্ঠানিকভাবে জানতে পারে যে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের

৮ কোটি ১০ লাখ ডলার ফিলিপাইন থেকে অন্যত্র চলে গেছে।

১৬ ফেব্রুয়ারি : এ দিন বাংলাদেশ ব্যাংক ও বাংলাদেশ আর্থিক গোয়েন্দা ইউনিটের প্রতিনিধিরা ফিলিপাইনের ম্যানিলায় গিয়ে সে দেশের এএমএলসির সঙ্গে বৈঠক করেন।

১৭ ফেব্রুয়ারি : এ দিন শ্রীলঙ্কার প্যান এশিয়া ব্যাংকিং বাংলাদেশ ব্যাংকের নিউইয়র্ক ফেড শাখায় ২ কোটি ডলার ফেরত দেয়।

২৯ ফেব্রুয়ারি : এ দিন পাঁচটি ব্যাংক হিসাব জব্দ করার জন্য ফিলিপাইনের এএমএলসির পক্ষ থেকে আদালতে মামলা করা হয়। এ দিন অর্থ চুরির ঘটনাটি নিয়ে ফিলিপাইনের পত্রিকা ইনকোয়ারার প্রথম প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

১ মার্চ : এ দিন ফিলিপাইনের আদালত অভিযুক্ত ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ দেন।

৭ মার্চ : এ দিন বাংলাদেশ ব্যাংক আনুষ্ঠানিকভাবে গণমাধ্যমকে রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনাটি জানায়। দেশের সংবাদমাধ্যমে রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনা নিয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

১৫ মার্চ : এ দিন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আতিউর রহমান পদত্যাগ করেন।

Loading...
loading...

ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন



Loading...

About sylhet24 express

Check Also

চীনকে হারিয়ে পঞ্চম স্থানের লড়াইয়ে বাংলাদেশ

চীনকে হারিয়ে পঞ্চম স্থানের লড়াইয়ে বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক : দুর্দান্ত দুটি সেভ করলেন গোলরক্ষক আবু নিপ্পন। শেষে ভুল করলেন না অধিনায়ক রাসেল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *