Breaking News
loading...
Home / বিনোদন / চলে গেলেন বাংলার কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী আব্দুল জব্বার

চলে গেলেন বাংলার কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী আব্দুল জব্বার

আব্দুল জব্বার
কণ্ঠশিল্পী আব্দুল জব্বার আব্দুল জব্বার

বিনোদন প্রতিবেদক : কিংবদন্তি কণ্ঠযোদ্ধা আব্দুল জব্বার আর নেই। বুধবার (৩০ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৮টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। বিএসএমএমইউ ভিসি অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করেছি। কিন্তু আজ সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।’
তার মৃত্যুতে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের সংগীতশিল্পী তিমির নন্দী শোক প্রকাশ করে বলেন, ‘এ দেশে তার উপর কোনো আর্টিস্ট ছিল না। আব্দুল জব্বার এ দেশের সম্পদ। তিনি শুধু সংগীতে অবদান রাখেননি, তিনি মুক্তিযুদ্ধেও অবদান রেখেছেন। তার অসংখ্য গান কালের সীমা অতিক্রম করেছে। যে কারণে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তার অনেক ভক্ত নিজ থেকেই বলেছেন, আমরা কিডনি দেব। ভক্তদের এই ভালোবাসা পাওয়া বিরল ঘটনা।’

স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় আব্দুল জব্বার হারমোনিয়াম নিয়ে কলকাতার বিভিন্ন ক্যাম্পে গিয়ে গান গেয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্বুদ্ধ করেন। সেই দুঃসময়ে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে গেয়েছেন অসংখ্য গান। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে এই শিল্পীর গাওয়া বিভিন্ন গান মুক্তিযোদ্ধাদের প্রেরণা ও মনোবল বাড়িয়েছে। ১৯৭১ সালে তিনি মুম্বাইয়ে ভারতের প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য জনমত তৈরিতেও নিরলসভাবে কাজ করেন।

জনপ্রিয় এ কণ্ঠশিল্পী দীর্ঘদিন ধরে কিডনি, হার্ট, প্রস্টেট ও ডায়াবেটিসসহ বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। তিনি বিএসএমএমইউতে প্রায় তিন মাস ধরে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ১ আগস্ট তাকে বিএসএমএমইউয়ের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়।

বরেণ্য এই শিল্পী তার জীবনের পুরোটা সময় দিয়ে গেছেন সুর-সংগ্রামে। মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে তার গান হয়ে উঠেছিল প্রতিবাদের অন্য ভাষা। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রাণে সাহস জোগাতে সে গানের ভ‚মিকা ছিল অপরিসীম।
আব্দুল জব্বারের গান কালের সীমানা পেরিয়েছে। একাধিক প্রজšে§র কাছে পেয়েছে জনপ্রিয়তা। তার গাওয়া গান এখনো অনেক শিল্পী মঞ্চে কিংবা কোনো অনুষ্ঠানে গেয়ে থাকেন। শ্রোতাপ্রিয়তার বিচারে সর্বকালের সেরা ২০টি বাংলা গানের মধ্যে তিনটি গানই আব্দুল জব্বারের গাওয়া। এগুলো হলো ‘তুমি কি দেখেছো কভু’, ‘সালাম সালাম হাজার সালা এবং ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’।

এছাড়াও তার কণ্ঠে গাওয়া কালজয়ী চলচ্চিত্র ‘পিচ ঢালা পথ’র শিরোনাম সঙ্গীত, ‘সারেং বৌ’ ছবির ‘ও রে নীল দরিয়া’ এবং ‘ঢেউয়ের পর ঢেউ’ ছবির ‘সুচরিতা যেও নাকো, আরো কিছুক্ষণ থাকো’ গানগুলো প্রজন্মের পর প্রজন্মে জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছে।

স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী আবদুল জব্বার স্বাধীনতা পদক, একুশে পদকসহ বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পদক পেয়েছেন।

কালজয়ী কণ্ঠশিল্পীকে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বনানী শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। এর আগে বেলা ১১টায় সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য তার মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাখা হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে বাদ আসর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়ার কিছুক্ষণ পর তার মরদেহ মোহাম্মদপুর বাবর রোডে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে রাজধানীর ভ‚তের গলিতে আবদুল জব্বারের নিজ বাসায় মরদেহ আনা হয়। এরপর তার মরদেহ রাখা হয় বারডেম হাসপাতালের হিমঘরে ।

বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়ার কিছুক্ষণ পর তার মরদেহ মোহাম্মদপুর বাবর রোডে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে রাজধানীর ভ‚তের গলিতে আবদুল জব্বারের নিজ বাসায় মরদেহ আনা হয়। এরপর তার মরদেহ রাখা হয় বারডেম হাসপাতালের হিমঘরে ।

Loading...
loading...

ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন



Loading...

About sylhet24 express

Check Also

‘বলিউডে যৌনহয়রানির শিকার পুরুষরাও’

‘বলিউডে যৌনহয়রানির শিকার পুরুষরাও’

বিনোদন ডেস্ক : বলিউডে শুধুমাত্র নারী নন, পুরুষরাও একই রকমের যৌন য়রানির শিকার। এমন বহু পুরুষ সহ-অভিনেতাকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *